শুক্রবার, ১৯শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ঋতুস্রাব চলাকালীন যেসব খাবার খাবেন না

ঋতুস্রাব চলাকালীন নারীকে পোহাতে হয় নানা রকম শারীরিক সমস্যা। যেমন গা-হাত-পা ব্যথা, ক্র্যাম্প, ক্লান্তি, মাথা ব্যথা, দুর্বলতা, আলস্য, বিরক্তি এবং হজমের সমস্যা হয়। অবশ্য ক্ষেত্রবিশেষে সমস্যার ভিন্নতাও দেখা দেয়। এ সময় নারীদের অনেক শারীরিক ও মানসিক পরিবর্তন হয়।

তাই ঋতুস্রাব চলাকালীন স্বাস্থ্যের যত্ন নেওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। প্রচুর পরিমাণে সবুজ শাক-সবজি, গোটা শস্য, ফল, কলা, দই, স্যামন মাছ, বাদাম ও বীজ খাওয়া উচিত। এসব খাবার ঋতুস্রাব চলাকালীন ব্যথা, খিঁচুনি, অস্বস্তি ইত্যাদি দূর করতে সাহায্য করবে। কিন্তু ঋতুস্রাবের সময় সমস্যা বাড়াতে পারে এমন কিছু খাবারও কিন্তু রয়েছে।
যা জানা খুব গুরুত্বপূর্ণ। এ সময় নিম্নলিখিত খাবারগুলো এড়িয়ে চলুন-ক্যাফেইন এড়িয়ে চলুন

ঋতুস্রাবের সময় ক্যাফেইনের পরিমাণ সীমিত রাখা উচিত। যদিও ক্যাফেইন পিরিয়ডের ওপর সরাসরি কোনো প্রভাব ফেলে না। তবে কখনো কখনো বেশি প্রস্রাব বা মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।

এ সময় বেশি কফি পান করলে ডিহাইড্রেশনও হতে পারে। এটি কষ্ট আরো বাড়িয়ে দিতে পারে। মনে রাখবেন, অনেক সফট ড্রিংকসেও কিন্তু ক্যাফেইন থাকে। এ ধরনের পণ্যের পরিবর্তে, গ্রিন টি, গাজর এবং টমেটোর রস বা যেকোনো ধরনের স্যুপ খেতে পারেন। এটি ঋতুস্রাবের সময় ক্র্যাম্প উপশম করতে সাহায্য করবে।
উচ্চ ফ্যাটযুক্ত খাবার একদম না

ঋতুস্রাবের সময় মুড সুইং হওয়া স্বাভাবিক ঘটনা। সে কারণে অনেকে এই সময়ে ভাজাপোড়া, বার্গার, চিপস, চানাচুর খেয়ে ফেলেন বেশি বেশি করে। এতে হিতে বিপরীত হয়। এমনিতেই শরীর দুর্বল। হজমশক্তিতেও প্রভাব পড়ে। তাই এ সময়ে বেশি গুরুপাক, ফ্যাটযুক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন। বরং মসুর ডালের স্যুপ, গ্রিলড-তন্দুরি চিকেন, অল্প তেলে মাছ ভাজা, চিকেন স্টুয়ের মতো সুস্বাদু অথচ স্বাস্থ্যকর খাবার খান।

দুগ্ধজাত পণ্য বাদ রাখুন

মাসের ওই কয়েক দিন দুধের খাবার এড়িয়ে চলুন। দুধ, পনির এবং ক্রিম থেকে হজমের গোলমাল হতে পারে। ঋতুস্রাবের সময় এগুলো ক্র্যাম্পের ঝুঁকি বৃদ্ধি করে।

অতিরিক্ত লবণ খাওয়া থেকে বিরত থাকুন

ফাস্ট ফুড, ভাজাভুজি ইত্যাদিতে কিন্তু প্রচুর পরিমাণে লবণ থাকে। এগুলো পেট ফাঁপা, আলস্য, ডিহাইড্রেশন বৃদ্ধি করতে পারে। তাই লবণের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখুন ঋতুস্রাব চলাকালীন।

রেড মিট এড়িয়ে চলুন

রেড মিটে এমন ধরনের এসিড থাকে, যা প্রস্টেট গ্রন্থিকে অতি সক্রিয় করে তুলতে পারে। ফলে পিরিয়ডসের ব্যথা বাড়তে পারে। তাই বাড়িতে এই ক’দিন রেড মিট না খেয়ে মাছ কিংবা মুরগি খেতে পারেন।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  

All Rights Reserved ©2024