সোমবার, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ওয়েল্কাম ব্যাক মোহাম্মদ আমির

সম্ভাবনার অফুরন্ত উৎস ছিলেন মোহাম্মদ আমির। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার শুরুটা হয়েছিল চমৎকার। এলিট শ্রেণির ক্রিকেটে নিজের সেই অপার সম্ভাবনার শতভাগ বিকশিত করতে পারেননি। তার সেই রোমাঞ্চকর অভিযাত্রায় অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় অঘটন আর বিতর্ক। অনাকাঙ্ক্ষিত সেই কাণ্ডই ছেদ ফেলে দেয় তার মনোরম ক্যারিয়ারে।২০১০ সালে স্পট-ফিক্সিংয়ে জড়িয়ে পাঁচ বছর নিষিদ্ধ হন সব ধরনের ক্রিকেট থেকে। অপরাধের প্রমাণ মেলায় ইংল্যান্ডে জেলও খাটেন পাকিস্তানের এ স্টার পেসার। নিষেধাজ্ঞা শাস্তি শেষে ক্রিকেটে ফিরে নিজেকে আর সেভাবে মেলে ধরতে পারেননি। তার আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের নতুন অধ্যায় থেমে যায় অল্প কিছু পরই। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) বিরাগভাজন হয়ে হুট করেই ঘোষণা দেন অবসরের।

 

তবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সামনে রেখে অবসর ভেঙে ফের নাম লিখলেন পাকিস্তানের জাতীয় ক্রিকেট টিমে। দীর্ঘ চার বছর পর পাকিস্তানের সবুজ জার্সি গায়ে জড়ালেন আমির। জাতীয় দলের জার্সি গায়ে দেওয়ার সুখানুভূতি নিশ্চয় দারুণ! এ বাঁ-হাতি সিমার মনের ভেতর লুকানো সেই আবেগটাই প্রকাশ করলেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।আগামী ২ জুন-২৯ জুন যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে বসতে যাচ্ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আসর। পরিবেশ-পরিস্থিতি আর ফিটনেস অনুকূলে থাকলে এ বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে পাকিস্তানের প্রতিনিধিত্ব করবেন আমির। ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম সংস্করণের বিশ্বকাপে খেলার লক্ষ্য নিয়েই গত মাসে অবসর ভেঙে জাতীয় দলে ফেরার ইচ্ছার কথা জানান আমির। তার মতো একই সিদ্ধান্ত নেন ইমাদ ওয়াসিমও।

 

সেই ধারাবাহিকতায় পাকিস্তানের অনুশীলন ক্যাম্পের স্কোয়াডে ঢুকে যান দুজনে। এতেই এই দুই তারকার জাতীয় দলে ফেরাটা নিশ্চিত হয়ে যায়। শেষে আসন্ন নিউজিল্যান্ড সিরিজের দলে অন্তর্ভুক্ত হন আমির। তার সঙ্গে অবসর ভেঙে ফের জাতীয় দলের সদস্য হন তারকা অলরাউন্ডার ইমাদ ওয়াসিমও।

নিজের ফেরাটা এবার স্মরণীয় করে রাখতে চান স্টার সিমার আমির। মাঠে নামার আগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নতুন করে মেন ইন গ্রিনদের হয়ে খেলার সুযোগ পেয়ে মহান সৃষ্টিকর্তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন আমির। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পাকিস্তানের জার্সি পরিহিত নিজের একটি ছবি শেয়ার দিয়ে আমির লিখেছেন, ‘আল্লাহর নামে শুরু করছি আবার, প্রায় চার বছর পর।’

ঘরের মাঠে আজ শুরু হতে যাচ্ছে পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ডের মধ্যকার পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। পাকিস্তানের হোম সিরিজ শেষ হবে ২৭ এপ্রিল। আইপিএলে খেলতে কিউইদের অনেক তারকা ক্রিকেটার পাকিস্তান সফর থেকে নিয়েছেন ছুটি। এই সিরিজ দিয়েই ফের নিজেকে মেলে ধরতে মরিয়া হয়ে আছেন আমির। এই সিরিজের পর্দা নামার এক মাস পর যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ।

এখন পাকিস্তানের পেস আক্রমণে চলছে দৈন্যদশা। এমন সময়ে আমিরকে খুব দরকার পাকিস্তানের। শাহিন আফ্রিদি থাকলেও হারিস রাউফ ফর্ম হারিয়ে খুঁজছেন। তার ওপর পিসিবির সঙ্গে তার সম্পর্কে ধরেছে চিড়। আর ইনজুরি তো তার পিছু নিয়েছে অনেক আগেই।

পাকিস্তানের হয়ে ১৪৭টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেন আমির। ৩২ বছরের পেসার নিজের প্রিয় জন্মভূমির হয়ে ৫০ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে শিকার করেন ৫৯ উইকেট। ৬১টি এক দিনের ম্যাচে ৮১ আর ৩৬টি লাল বলের ম্যাচে নেন ১১৯ উইকেট।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

All Rights Reserved ©2024