বুধবার, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে গ্র্যাজুয়েশন পার্টিতে এলেন দেবাশীষ মৃধার একমাত্র কন্যা

মিশিগান প্রতিদিন ডেস্কঃ সাগিনা সিটির বাসিন্দা, বিশিষ্ট চিকিৎসক এবং স্বনামধন্য দার্শনিক ড. দেবাশীষ মৃধা ও চিনু মৃধা দম্পতির একমাত্র মেয়ে অমিতা মৃধা। অমিতার জন্য তারা আজ দারুণ আনন্দিত ও গর্বিত। কারণ তাদের মেয়ে অমৃতা মৃধা এই বছর গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করে নতুন ধাপে পদার্পণ করছে। স্নাতক ডিগ্রি অর্জন বিশ্ববিদ্যালয়ে যাচ্ছে অমিতা। গর্বিত পিতা-মাতা এই দিনটির জন্য বহুদিন ধরেই অপেক্ষা করছিলেন। অবশেষে, অমিতা সেই কাজটি করতে যাচ্ছে। তাঁর এই সাফল্যে গতকাল শনিবার বিকেলে নগরীর ১৫৮১, সাউথ ওয়াশিংটন এবিনিউস্থ মন্টেগু ইনে এক জমকালো অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন অমিতার প্রিয় মা-বাবা।

সুসজ্জিত ঘোড়ার গাড়িতে চড়ে অনুষ্ঠানে আসেন অমিতা। বাবা-মা ও অতিথিদের নিয়ে গ্র্যাজুয়েশন পার্টির কেক কাটেন অমিতা। সন্ধ্যা পর্যন্ত গ্র্যাজুয়েশন পার্টিতে নেচে-গেয়ে আনন্দ করেছেন অতিথিরা। লাঞ্চে ছিল নানা রকম সুস্বাদু খাবার।অমিতা ২০০৪ সালের ৩০ মার্চ জন্মগ্রহণ করেন। তিনি সাগিনা আর্টস এন্ড সাইন্স একাডেমিতে তার শিক্ষা জীবন শুরু করেন। পরে তিনি হেরিটেজে স্কুল ভর্তি হন। এবং গ্র্যাজুয়েশন শেষ করেন। ভবিষ্যতে তিনি মিশিগান স্টেট ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনা করতে আগ্রহী। তিনি তার পিতার পদাঙ্ক অনুসরণ করে সৃজনশীল লেখালেখিতে ইংরেজি সাহিত্যে ডিগ্রি অর্জনের পাশাপাশি একজন স্নায়ুবিজ্ঞানী হতে চান।অমিতা বহু-প্রতিভাবান এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে দক্ষ। অমিতা একজন উজ্জ্বল এবং বহুমুখী কণ্ঠশিল্পী, যিনি ইংরেজি, বাংলা, হিন্দি এবং রাশিয়ান সহ একাধিক বৈচিত্র্যময় ভাষায় গান গাইতে পারেন। তিনি নাচ এবং বাদ্যযন্ত্রও পছন্দ করেন। ভারতীয় ওডিসি নৃত্যেও তিনি পারদর্শী। মা ও মেয়ের মধ্যে বন্ধন এবং সাদৃশ্য অত্যন্ত বিস্ময়কর। কারণ অমিতা এবং তার মা প্রায়শই একসাথে অভিনয় করার সময় তাদের প্রতিভা প্রদর্শন করে। তার সৃজনশীল প্রতিভার মধ্যে রয়েছে অঙ্কন। যার জন্য তিনি অসংখ্য পুরষ্কার পেয়েছেন। অমিতা মূলত একজন চিন্তাশীল ও দয়ালু। তার আত্মা কোমল, প্রেমময় যা বিশ্ব শান্তি এবং সকলের মঙ্গল কামনায় নিবেদিত।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

All Rights Reserved ©2024