রবিবার, ২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

তাপমাত্রা বাড়ছে, প্রতিরোধের উপায় জেনে নিন

উজ্জ্বল রৌদ্রোজ্জ্বল দিন এবং উষ্ণ আবহাওয়া সবাই পছন্দ করে। কিন্তু এমনকি যারা গ্রীষ্মকে স্বাগত জানাতে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেন তারাও একমত হবেন যে তাপপ্রবাহ বেশ অস্বস্তিদায়ক হতে পারে। যতক্ষণ না আপনাকে বাইরে বের হতে হচ্ছে ততক্ষণ পর্যন্ত ঠিক আছে কিন্তু বাইরে বের হলে আর স্বস্তিটুকু থাকবে না।

গরমের সময়ে বাইরে পা রাখা একটি বড় চ্যালেঞ্জ হতে পারে। ঘাম এবং তাপ সহজেই ডিহাইড্রেশন হতে পারে এবং এর কারণে আপনি ক্লান্ত হয়ে পড়তে পারেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক কিছু উপায় যা গরমে আপনাকে শীতল হতে সাহায্য করবে-

হাইড্রেটেড থাকুন

হাইড্রেটেড থাকা গরমের তাপ থেকে বাঁচার সহজ নিয়ম। ঘামের মাধ্যমে যে পানি বের হয়ে যায়, পর্যাপ্ত পানি ও অন্যান্য তরল পান করলে সেই ঘাটতি পূরণ হয়। সব ধরনের আবহাওয়ায়ই প্রতিটি ব্যক্তির জন্য ২ লিটার পানি পান করা গুরুত্বপূর্ণ। গ্রীষ্মকালে শরীর থেকে সহজে পানি কমে যাওয়ার কারণে আপনাকে একটু এসময় বেশি পানি পান করতে হবে। জুস, ডাবের পানি এবং হাইড্রেটিং ফল খান নিয়মিত।

হালকা গরম পানিতে গোসল করুন

গরম আবহাওয়ায় ঠান্ডা পানিতে গোসল করা আরামদায়ক বলে মনে হয়, কিন্তু বিশেষজ্ঞরা বলেন যে এটি আপনাকে আরও গরম অনুভব করাতে পারে। কারণ আপনি যখন ঠান্ডা পানিতে গোসল করেন তখন শরীরকে আবার গরম করার জন্য আরও কঠোর পরিশ্রম করতে হয়। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে যে গরম পানি রক্ত প্রবাহকে ঠান্ডা করে। সুতরাং এটি বেছে নেওয়া একটি ভালো উপায়।

চা এবং কফি এড়িয়ে চলুন

ক্যাফেইন এবং নিকোটিন গ্রহণ শরীরের মূল তাপমাত্রা বৃদ্ধি করতে পারে। এগুলো রক্তনালীকে সংকুচিত করে। যা রক্তকে উষ্ণ করে এবং এর ফলে আপনার গরম বেশি লাগে এবং ঘাম বেশি হয়। ডাবের পানি, লেবুর শরবত এবং ফলের রসের মতো ঠান্ডা পানীয় পান করুন। সেইসঙ্গে অ্যালকোহল গ্রহণও এড়ানো উচিত।

হালকা খাবার খান

ভারী খাবার খাওয়া শরীরে তাপ তৈরি হতে পারে এবং আপনি অস্বস্তি বোধ করতে পারেন। ভারী খাবার খাওয়ার পরে আপনার শরীরকে খাবার হজম এবং তা বিপাক করার জন্য কঠোর পরিশ্রম করতে হবে। এটি অবশেষে আপনার শরীরের তাপমাত্রা বাড়ায় এবং ঘাম ও ক্লান্তির মতো সমস্যা দেখা দেয়। গরমে হালকা এবং তাজা রান্না করা খাবার খান। প্রক্রিয়াজাত খাবার এবং নোনতা খাবার খাওয়া কমিয়ে দিন।

পায়ের আঙ্গুল ঠান্ডা করুন

যদি অতিরিক্ত গরম অনুভব করেন তবে তাপমাত্রা কমিয়ে আনার একটি সহজ উপায় হলো পায়ের আঙ্গুলগুলোকে ঠান্ডা করা। কিছু সময়ের জন্য আপনার পা ঠান্ডা পানিতে ভিজিয়ে রাখলে আরাম পাবেন এবং গরমও কম অনুভব করবেন। কিছুক্ষণ ভেজা মোজাও পরতে পারেন। তবে খেয়াল রাখবেন যেন ঠান্ডা লেগে না যায়।

ঢিলেঢালা সুতির কাপড় পরুন

টাইট ফিট করা এবং গাঢ় রঙের জামাকাপড় পরলে আরও বেশি ঘামতে পারেন। আপনি যদি ঠান্ডা থাকতে চান এবং অতিরিক্ত ঘাম এড়াতে চান তাহলে ঢিলেঢালা এবং হালকা রঙের সুতির কাপড় বেছে নিন। মোটা কাপড় পরলে ঘাম বাষ্পীভূত হয় না। এছাড়া গাঢ় রং আলোর তরঙ্গদৈর্ঘ্য বেশি শোষণ করে। যে কারণে এ ধরনের কাপড় পরলে আরও বেশি গরম লাগে।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

All Rights Reserved ©2024