শনিবার, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পাকিস্তানের বিশ্বকাপ জয়ের সুযোগ দেখছেন কারস্টেন

একজন কোচের যেসব সাফল্য পাওয়ার স্বপ্ন থাকে, তার প্রায় সবই আছে দক্ষিণ আফ্রিকার কিংবদন্তি গ্যারি কারস্টেনের। ২০১১ সালে ভারতের কোচ হিসেবে ওয়ানডে বিশ্বকাপ পেয়েছেন। টেস্টে এক নম্বর দলে পরিণত করেছেন। যদিও কারস্টেনের হাতে শোভা পায়নি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। এবার পাকিস্তান জাতীয় দলের কোচ হয়েছেন ঠিক টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগেই। তার নেতৃত্বে স্বপ্ন বুনছে ম্যান ইন গ্রিনরাও।

গেল মাসে দুই বছরের চুক্তিতে পাকিস্তানের কোচ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন কারস্টেন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে চার ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরুর আগে আগামী ১৯ মে লিডসে দলের যোগ দেবেন তিনি। ২২ মে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচের আগে পাকিস্তানের খেলোয়াড় ও কোচিং স্টাফদের সঙ্গে তিন দিন সময় কাটানোর সুযোগ পাবেন কারস্টেন।

 

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজ দিয়েই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি সম্পন্ন করবে পাকিস্তান। আগামী ৬ জুন বিশ্বকাপের যৌথ আয়োজক যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করবে পাকিস্তান। আসন্ন বিশ্বকাপ নিয়ে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) দেওয়া এক বিবৃতিতে কারস্টেন বলেন, ‘পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্য সত্যি একটি রোমাঞ্চকর সময়। সাফল্য অর্জনের জন্য নতুন প্রশাসন ও খেলোয়াড়দের একত্রে সামনে এগিয়ে যাওয়াই মূল লক্ষ্য।’তিনি আরও বলেন, ‘আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে আমাদের সামর্থ্য দেখানো ও শক্তিশালী দল হিসেবে নিজেদের অতীত অর্জনকে ধরে রাখার দারুণ এক সুযোগ।’ বিশ্বকাপের মত বড় মঞ্চে সাফল্যের জন্য দলীয় পারফরম্যান্স ও পরিকল্পনার প্রয়োজন আছে বলে জানান কারস্টেন। তিনি বলেন, ‘সম্মিলিত চেষ্টা, যথাযথ পরিকল্পনা এবং একে অপরের প্রতি সমর্থনের ওপর সাফল্য নির্ভর করে। শিরোপার জন্য অন্য ১৯ টি দলের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হবে। আমাদের লক্ষ্য অর্জনের জন্য ধারাবাহিক পারফরম্যান্স করে প্রতিপক্ষকে ধরাশায়ী করতে হবে।’২০১১ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপজয়ী ভারতের সাবেক কোচ কারস্টেন আরও বলেন, ‘ব্যক্তিগতভাবে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে কোচিং করার অভিজ্ঞতাকে মিস করছি আমি। যেখানে প্রতিভাবান খেলোয়াড়দের সেরা পর্যায়ে পৌঁছাতে তাদের দেখভাল করা হতো। খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সের উন্নতি জন্য এবং বিশ্বের ভক্তদের আনন্দ দিতে আমি দলের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।’

 

আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের শিরোপা জয়ের সুযোগ দেখছেন দক্ষিণ আফ্রিকান এই কোচ। অবশ্য এটাও জানালেন, সম্ভাবনা থাকলেও কঠিন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হবে বাবর-রিজওয়ানদের।

 

কাস্টেনের সাথে পাকিস্তানের কোচিং প্যানেলে সাইমন হেলমটকে মেন্টাল পারফরম্যান্স এবং ডেভিড রিডকে ফিল্ডিং কোচের দায়িত্বে রাখা হয়েছে। পিসিবি জানিয়েছে, ২০ মে দলে যোগ দেওয়ার পর বিশ্বকাপের শেষ পর্যন্ত কাজ করবেন রিড। এদিকে ৩১ মে দলের সাথে যুক্ত হবেন হেলমেট। বর্তমানে ফিল্ডিং কোচের দায়িত্ব পালন করছেন আফতাব খান। হেলমট দায়িত্ব নেওয়ার পর বিশ্বকাপে দলে হাই-পারফরমেন্স কোচের দায়িত্ব নেবেন আফতাব।

 

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

All Rights Reserved ©2024