সোমবার, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পুলিশ হেফাজতে রায়হান হত্যা, আদালতে চার্জশিট গ্রহণ

সিলেটে রায়হান আহমদ হত্যা মামলার চার্জশিট (অভিযোগপত্র) আদালত গ্রহণ করেছেন। প্রায় চার মাস পর পর্যালোচনা শেষে বৃহস্পতিবার অ্যাডিশনাল চিফ মেট্রোপলিটন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চার্জশিটটি গ্রহণ করা হয়।

এ সময় মামলায় গ্রেপ্তার কারাবন্দী প্রধান আসামি পুলিশের এসআই (সাময়িক বরখাস্ত) আকবর হোসেন ভূঁইয়াসহ (৩২) সব আসামিকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। তাঁদের সামনে অভিযোগপত্রের পর্যালোচনা হয়। এ সময় রায়হানের মা সালমা বেগমসহ মামলার বাদী, পরিবারের সদস্যরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলার অভিযোগপত্রে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন রায়হানের মা সালমা বেগম। তিনি দ্রুত এ মামলা শেষ করে জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানান।

রায়হানের মা সালমা বেগম বলেন, সব আসামির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। অপরাধীরা শাস্তি পেলে আমার ছেলের আত্মা শান্তি পাবে। দ্রুত বিচারের দাবি জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আমি মরে যাওয়ার আগে আসামিদের শাস্তি দেখে যেতে চাই। ছেলে হত্যার দৃষ্টান্তমূলক বিচার দাবি করে তিনি বলেন, আমার রায়হানই যেন পুলিশের হেফাজতে মৃত্যুর শেষ নাম হয়।

এর আগে গত বছরের ১০ অক্টোবর মধ্যরাতে সিলেট মহানগর পুলিশের বন্দরবাজার ফাঁড়িতে তুলে নিয়ে রায়হান আহমদকে নির্যাতন করা হয়। ১১ অক্টোবর তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় পরদিন ১২ অক্টোবর তার স্ত্রী তাহমিনা আক্তার তান্নী বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় একটি হত্যা মামলা করেন।

চলতি বছরের ৫ মে আলোচিত এ মামলার অভিযোগপত্র আদালতে জমা দেয় মামলার তদন্তকারী সংস্থা পিবিআই।অভিযোগপত্রে ছয়জনের বিরুদ্ধে দেওয়া চার্জশিটের পাঁচজনই পুলিশ সদস্য। তারা হলেন- বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির তৎকালীন ইনচার্জ এসআই আকবর হোসেন ভুঁইয়া, এসআই হাসান উদ্দিন, এএসআই আশেক এলাহী, কনস্টেবল টিটুচন্দ্র দাস ও হারুনুর রশিদ। অভিযুক্ত অপরজন হলেন কোম্পানীগঞ্জের আব্দুল্লাহ আল নোমান। তার বিরুদ্ধে ঘটনার পর ভিডিও ফুটেজ গায়েব করার অভিযোগ রয়েছে।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

All Rights Reserved ©2024