সোমবার, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বিশ্বকাপের আসল মহড়া আজ শুরু

গাজী আশরাফ হোসেন লিপুর মন ভালো নেই। ফোনে কুশল জানতে চাওয়াতে দীর্ঘশ্বাস ছেড়ে বলে গেলেন মন খারাপের বৃত্তান্ত– ‘নাজমুল হোসেন শান্ত রান পাচ্ছে না। লিটনের ব্যাট ক্লিক করেনি। লিটনকে মিডল অর্ডারে খেলাতে হলে একজনকে রিজার্ভ বেঞ্চে পাঠাতে হবে। এ নিয়ে খুব দুশ্চিন্তায় আছি।’

 

বিসিবির সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হওয়ার পর লিপু ছিলেন মিডিয়ায় ক্রিকেটের বিশ্লেষক। টিভিতে খেলা দেখে বিশ্লেষণ করতেন। তিনি এখন খেলা দেখেন খুব কাছ থেকে। পেশাগত কারণে ক্রিকেটারদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখতে হচ্ছে তাঁকে। তাই খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সেও প্রত্যক্ষ-পরোক্ষভাবে প্রভাবিত হচ্ছেন। বিশেষ করে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে লিটন কুমার দাস ও নাজমুল হোসেন শান্ত রান না পাওয়া হতাশ করেছে তাঁকে। বিসিবির এই প্রধান নির্বাচকের চাওয়া সিরিজের শেষ দুই ম্যাচে রান করে বিশ্বকাপে যাবেন তারা।মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আজ অনুষ্ঠেয় ম্যাচটি সিরিজের চতুর্থ, যেখানে একাদশ সাজানো হবে বিশ্বকাপ মাথায় রেখে। স্কোয়াডও সাজানো হয়েছে অনুরূপ পরিকল্পনায়। সাকিব আল হাসান, সৌম্য সরকার, মুস্তাফিজুর রহমান ফিরেছেন। এই তিনজনই একাদশের নিয়মিত খেলোয়াড়। তাই তানজিদ হাসান তামিমের সঙ্গে ওপেন করতে পারেন সৌম্য। এই জুটি ক্লিক করে গেলে বিশ্বকাপেও ইনিংস ওপেন করতে দেখা যেতে পারে।

 

মিডল অর্ডারে সাকিব যোগ হওয়ায় একাদশের ব্যাটিং-বোলিং ইউনিটেও পরিবর্তন অনিবার্য। মূলত বিশ্বকাপের মূল মহড়াটা ঢাকার দুই ম্যাচকেন্দ্রিক রেখেছেন কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে। সৌম্য, তামিম ও শান্তকে টপঅর্ডারে রেখে তাওহিদ হৃদয়, লিটন দাস ও সাকিব আল হাসানকে মিডল অর্ডারে খেলাতে পারে। সাত নম্বরে খেলতে পারেন জাকের আলি অনিক। লোয়ার অর্ডারের তিনটি জায়গা বোলারদের। জাতীয় দল সূত্রে জানা গেছে, আজকের ম্যাচের জন্য টিম ম্যানেজমেন্টের পরিকল্পনা অনেকটা এ রকমই। সে ক্ষেত্রে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের জায়গা নেই! অথচ তিনি পারফরমার হওয়ায় বিশ্রামে রাখাও কঠিন।

বাংলাদেশ এই সময়ে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ সিরিজ খেলছে মূলত জয়ের ছন্দে থেকে বিশ্বকাপে যাওয়ার অভিপ্রায়ে। পরিকল্পনা মতো জয়ের ছন্দেও আছে তারা। চট্টগ্রামে টানা তিন ম্যাচ জিতে সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে। বাকি ম্যাচ দুটিও জিততে চায় তারা। ২০২১ সালের টি২০ বিশ্বকাপের আগেও অনুরূপ কৌশল নেওয়া হয়েছিল। অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মিরপুরে সিরিজ জিতে বিশ্বকাপে গিয়ে বাজে ফল করেছিল বাংলাদেশ।

যেটাকে পরবর্তী সময়ে ক্রিকেট বিশ্লেষক নাজমুল আবেদীন ফাহিম অভিহিত করেছিলেন ‘ফেইক কনফিডেন্স’ বা ভুয়া আত্মবিশ্বাস হিসেবে। এবারও প্রশ্নটা উঠেছে। গতকাল ম্যাচ-পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রতিনিধি তাসকিন আহমেদের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছিল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ জয় নকল আত্মবিশ্বাস বাড়াচ্ছে কিনা।

দেশের কন্ডিশনে খেলা ভুল বার্তা দিচ্ছে কিনা– জানতে চাওয়া হলে টাইগার এ পেসার বলেন, ‘আসলে ফেইক কনফিডেন্স নয়। ভালো করলে যে কোনো জায়গায়ই আত্মবিশ্বাস বাড়ে। হ্যাঁ, আমরা জানি না যুক্তরাষ্ট্রের কন্ডিশন কেমন হবে। বেশির ভাগ ড্রপ ইন উইকেটে খেলা হতে পারে। আমাদের বেশির ভাগ খেলোয়াড়ের যুক্তরাষ্ট্রে খেলার অভিজ্ঞতা কম। ওইভাবে মানিয়ে নিতে হবে। এখন বাংলাদেশে খেলছি, খেলতেও হবে। কন্ডিশন তো আমরা বদলাতে পারব না। যদি আরেকটু স্পোর্টিং কন্ডিশন হতো, তাহলে ভালো হতো। তবে ভালো দিক হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আমাদের ৩টা ম্যাচ আছে।’

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

All Rights Reserved ©2024