শুক্রবার, ৩১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ভালবাসা আছে বলেই পৃথিবী আজও ঠিকে আছে, আবারও প্রমান করলেন এই দম্পতি

মৃদুল কান্তি সরকারঃ গত মঙ্গলবার (২৪ মে) যুক্তরাষ্ট্র টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের উভালদে শহরের রব প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একটি কিশোর হামলাকারীর আক্রোশ ছিল বাচ্চাদের উপর। কিন্তু মনুষ্যত্বের প্রতি মানুষের কতটুকু মমতা থাকলে নিজের বুক পেতে দিতে পারে, বন্দুকের সামনে অন্যের জীবন রক্ষার কল্যানে শিক্ষক ইরমা তার মূর্ত প্রতীক।

মঙ্গলবারের গুলি থেকে বেঁচে যাওয়া একজন চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র বলেছে, ইরমা গার্সিয়া এবং অন্য একজন শিক্ষক আমার এবং অন্যান্য বাচ্চাদের জীবন বাঁচিয়েছেন। বন্দুক হামলার সময় শিক্ষিক ইরমা গার্সিয়া হামলাকারীকে বাধা দেন, এবং বাচ্চাদের দ্রুত সরে যেতে নির্দেশ দিতে থাকেন। ইরমা প্রতিরোধ গড়ে তুলে নিজের বুক বুলেটের সামনে ধরেন।

নিহত ইরমা গার্সিয়ার স্বামী জো গার্সিয়া ভালোবাসার অগ্নি পরীক্ষায় আরেকটু এগিয়ে, প্রিয়তমার মৃত্যু তিনি মেনে নিতে পারেনি এক মুহুর্তের জন্যও, আজ হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে প্রিয়তমা স্ত্রীর সাথে তিনিও চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

ইরমা গার্সিয়ার চাচাতো ভাই ডেব্রা অস্টিন ফেসবুকে লিখেছেন, “আমি সত্যিই বিশ্বাস করি জো একটি ভাঙ্গা হৃদয়ে মারা গেছে।তার ২৫ বছরেরও বেশি জীবনের ভালবাসা হারানো সহ্য করা খুব কঠিন ছিল।”

তার ভাগ্নে জন মার্টিনেজ টুইটারে লিখেছেন,আমি অত্যন্ত হৃদয়বিদারক এবং গভীর দুঃখের সাথে বলতে চাই যে আমার চাচা শোকের কারণে মারা গেছেন। তাদের চারটি সন্তান রয়েছে।

দম্পতির আরেক ভাগ্নে টুইট করেছেন, জো গার্সিয়া বাড়িতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। জো গার্সিয়া ৫০ বছর বয়সী এবং স্ত্রী ইরমার স্মৃতিসৌধে ফুল রেখে বাড়ি ফেরার পথে তার হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে যায়। ইরমা এবং জো ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন। ভালোবাসারা এভাবেই বেঁচে থাকে, ছুঁয়ে যায় মানুষের হৃদয়।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

All Rights Reserved ©2024