বুধবার, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ভেসে চলা জীবনের রং

কবিঃ আফতাব মল্লিক

আগের সেই স্বপ্নগুলো মরে যায়নি তো-
তাই পুরোনো আশাগুলোকেই জাগিয়ে রেখেছি মনে।
কোনোদিন হয়তো বা সত্যি হয়ে ধরা দেবে-
হঠাৎ হেঁটে যাওয়া কোনো পথের বাঁকে।
এরকম আশা নিয়ে কতো মানুষ বাঁচে রোজ!
দুকূল ছাপানো প্লাবন দেখার আশায় কতো মানুষ-
বসে থাকে শুকিয়ে যাওয়া নদীর পাড়ে।
আসলে মনে মনে আঁকা সব ছবিগুলো হৃদয়ের দেয়ালে সত্যি হয়ে ঝলমল করে না কখনো।
হারিয়ে যায় সব কল্পনাগুলো একে একে জীবন থেকে-
যখন আমরা বেঁচে থাকার চেষ্টা করি কাউকে অবলম্বন করে।
যাদেরকে বিশ্বাস করে আমরা আমাদের সব স্বপ্ন গুলো বিলিয়ে দিই-
তারাই একদিন আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেয়-
বিশ্বাস শব্দটা নিজের কাছেই অবিশ্বাস্য!
বসন্তে যে বাগান, মন ভরে কোকিলের গান শোনে-
ফাগুন চলে গেলে সেই বাগান নিজেকে বাড়িয়ে দেয়-
অন্য পাখির বাসা বাঁধার জন্য।
কেউ খোঁজ নেয় না বর্ষায় কোকিলের দুর্দশার।
যে চোখের দিকে চেয়ে আমরা সারাজীবন কাটিয়ে দেওয়ার শপথ করি-
সেই চোখে অন্য কারোর প্রত্যাশা আমরা পড়তে পারি না।
কারন আমরা কেউ চিনিনা ছলনার অক্ষর!
স্রোতে ভেসে যাওয়া খড় কুটোর মতো আঘাত খেতে খেতে-
এক সময় থিতিয়ে পড়ি নীরব হয়ে।
প্রতারনার বেদনা ছিনিয়ে নেয় আমাদের নিজেকে প্রকাশ করার ভাষা!
কেউ নিজেকে পরীক্ষা করে আবার কারো হাতে হাত রেখে।
হয়তো বা সুখি হয় তারা ।
কিন্তু যারা পারে না নিজের সেই বিশ্বাস ভেঙে যাওয়ার আঘাত সামলে আবার নিজেকে মেলে ধরতে-
তারা হোঁচট খায় প্রতিদিন নিজের বেছে নেওয়া পথে!
কী নিষ্ঠুর আমরা নিজেরাই নিজেদের কাছে!
নিজের ইচ্ছায় খুঁজে নিয়েছি এই পথ!
তবুও আমরা এগিয়ে চলি ঐ পথে!
নদী যেমন পাহাড়ি পথে এগিয়ে চলে নিজেকে ক্ষতবিক্ষত করে।
হাজার চেষ্টা করেও সে যেমন পারে না ফিরে যেতে পাহাড় চুড়ায়।
আমরাও বাঁচি এভাবেই।
কারন শুধু সুখী মানুষরাই বাঁচে এ পৃথিবীতে।
বাকিদেরকে শুধু বেঁচে থাকতে হয়!

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

All Rights Reserved ©2024