রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

মিশিগানে স্বামী-স্ত্রীর মনোনয়ন জমা

ফারজানা চৌধুরীঃ একই ঘরে সংসার। দুই বছর আগে এক সাথেই পথ চলার জন্য আবদ্ধ হন দুজনে বিবাহ বন্ধনে। কিন্তু সংসার আর বাহিরের দুনিয়া যে ভিন্ন সেটাই আবার প্রমাণ হলো এক ঘরে দু্ইজন নির্বাচনে প্রার্থী হয়ে! স্বামীর বিপেক্ষ এমনই প্রার্থী হয়েছেন এক স্ত্রী।

রাজ্যের ১৩ আসনের রিপ্রেজেন্টেটিভ ডেমোক্রাট লরি স্টোন ওয়ারেন সিটির মেয়র নির্বাচিত হওয়ায় তাঁর পদ শূন্য হয়। আগামী ৩০ জানুয়ারি প্রাইমারী এবং ১৬ এপ্রিল ২০২৪ আসনের চূড়ান্ত নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এই ভোটযুদ্ধকে সামনে রেখে মনোনয়নপত্র দাখিল করছেন ডেমোক্র্যাট সুজান অস্টোশ এবং রিপাবলিকান কার্টিস অস্টোশ এক দম্পতি।

প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দাখিল করেছেন ৬ জন। এরমধ্যে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী তিনজন।আর রিপাবলিকান তিনজন। প্রার্থীরা হলেন, সুজান অস্টোশ (ডেমোক্র্যাট), লামার (ডেমোক্র্যাট), লেমনস (ডেমোক্র্যাট), মাই জিওং (ডেমোক্র্যাট), ব্র্যান্ডন কাম্বি (রিপাবলিকান) , কার্টিস অস্টোশ (রিপাবলিকান) এবং রোনাল্ড (রিপাবলিকান)।

দম্পতি সুজান এবং কার্টিস ওয়ারেনের হারভেস্ট টাইম ক্রিশ্চিয়ান ফেলোশিপ ফুড প্যান্ট্রি পরিচালনা করেন। মনোনয়নপত্র এবং ফাইলিং ফি জমা দেয়ার পর কার্টিস বলেন, দক্ষিণ প্রান্তে বাচ্চাদের খেলার তেমন জায়গা নেই, তাদের যাওয়ার কোন জায়গা নেই, তাদের জন্য কোন (বিনোদন) কেন্দ্র খোলা নেই। আমাদেরকে এগুলোর ব্যবস্হা করতে হবে। সুন্দরভাবে বাচ্চাদের বেড়ে উঠার পরিবেশ তৈরী করে দিতে হবে।

কার্টিস এবং সুজান উভয়ের লক্ষ্য হচ্ছে খাদ্য নিরাপত্তাহীনতা, সাশ্রয়ী আবাসন এবং অভিজ্ঞদের জন্য সহায়তা নিশ্চিত করা। কার্টিস বলেন, আমি প্রায়ই বাচ্চাদের ক্ষুধার্ত অবস্থায় বিছানায় যেতে দেখি। বাচ্চারা এখানে এসে বলে ‘আমি ক্ষুধার্ত’। আমি কি কিছু খেতে পারি? তখন আমার কান্না পায়।

কার্টিস অস্টোশ বলেন, আমাদের বিশ্বাস আমরা দুজনই ভালো প্রার্থী। আমরা মানুষকে ভালোবাসি এবং মানুষের যত্ন নিই। আমরা একে অপরের বিরুদ্ধে দৌড়াচ্ছি না। আমরা একে অপরের জন্য দৌড়াচ্ছি। আমরা সিটির জন্য দৌড়াচ্ছি কারণ আমরা মানুষের জন্য কাজ করতে চাই। তাই আমাদের মধ্যে যেই জিতুক না কেন, আমরা খুশি হব।

সুজান বলেন, আমরা স্বীকৃতি পাবার জন্য কিংবা প্রচুর অর্থ সংগ্রহ করার জন্য নির্বাচনে আসিনি। আমরা মানুষকে সাহায্য করতে এসেছি। আমি এবং আমার স্বামী আমরা দুজনই দীর্ঘদিন থেকে মানুষের কল্যাণে কাজ করে আসছি। কাকে ভোট দেবেন আর কাকে দেবেন না সেটা অবশ্যই আপনারা সিদ্ধান্ত নেবেন। তবে যিনি নির্বাচিত হলে জেলায় উন্নয়নমূলক কাজ হবে, দযাকরে আপনারা তাঁকেই ভোট দেবেন।

নির্বাচনের ফলাফল যাই হোক না কেন, দম্পতি বলেছেন যে তারা মানুষের কল্যানে কাজ চালিয়ে যাবেন। সূত্রঃ ফক্স নিউজ

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  

All Rights Reserved ©2024