বুধবার, ২৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

যুক্তরাষ্ট্রের ব্লিঙ্কেনকে আব্দুল মোমেনের চিঠি

শিব্বির আহমদঃ যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী (সেক্রেটারি অব স্টেট) অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনকে চিঠি দিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনকে দেওয়া চিঠিতে সন্ত্রাস বিরোধী কর্মকাণ্ডে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) ভূমিকাও তুলে ধরেছেন তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেনের কাছে চিঠি পাঠানোর বিষয়টি উল্লেখ করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, ‘ওনার (ব্লিঙ্কেন) সঙ্গে ফোনে যে বিষয়গুলো আলাপ হয়েছিল, সেগুলোই চিঠিতে লিখেছি।’

আজ রোববার সিলেটে এক অনুষ্ঠান শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এ কথা বলেন।

ইংরজি নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়ে আব্দুল মোমেন চিঠি পাঠিয়েছেন অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেনকে।

সিলেটে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বিভিন্ন সংলাপে আলোচনার সুযোগ রয়েছে। তাই যুক্তরাষ্ট্রের এই সিদ্ধান্ত (নিষেধাজ্ঞা) অপ্রত্যাশিত। র‍্যাব প্রতিষ্ঠান হিসেবে যথেষ্ট বিশ্বাসযোগ্য। প্রতিষ্ঠানটির কারণে সন্ত্রাস, মাদক ও মানব পাচার কমেছে। তাই এই সিদ্ধান্ত আমাদের কাছে তাজ্জব মনে হয়েছে।’

আব্দুল মোমেন আরও বলেন, ‘এগুলো (যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্ত) তো হাসির খোরাক। এটা (র‍্যাবের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা) ঠিক হয়নি। বিষয়টি যাচাইয়ের সুযোগ আছে। আমরা সে কথাটাই আবার চিঠিতে লিখেছি। মানবাধিকারের বিষয়ে আমরা সোচ্চার। এ নিয়ে আমরা আপস করি না।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে তাঁর ফোনালাপের পরই চিঠি পাঠানোর প্রস্তুতি নেওয়া হয়। ওয়াশিংটনে বাংলাদেশ দূতাবাসের মাধ্যমে এই চিঠি পাঠানো হয়েছে।

অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেনকে পাঠানো পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চিঠিতে র্যা বের সাত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা পুনর্বিবেচনার বিষয়টি রয়েছে।

চিঠিতে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক জোরদারের বিষয়ে গুরুত্বারোপ করা হয়। পাশাপাশি দেশে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ দমন ও মাদকবিরোধী কর্মকাণ্ডে র্যা বের শক্তিশালী ভূমিকার কথা চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

গত ১০ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবসে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে র্যা বের সাবেক ও বর্তমান সাত কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র।

নিষেধাজ্ঞার আওতায় আসা কর্মকর্তাদের মধ্যে র‍্যাবের সাবেক মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ রয়েছেন। তিনি এখন বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি)। বেনজীর আহমেদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র দপ্তর। পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি ডিপার্টমেন্টের নিষেধাজ্ঞার আওতায়ও পড়েছেন তিনি।

এ ছাড়া র‍্যাবের বর্তমান মহাপরিচালক (ডিজি) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন, অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস) খান মোহাম্মদ আজাদ, সাবেক অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস) তোফায়েল মোস্তাফা সরোয়ার, সাবেক অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস) মো. জাহাঙ্গীর আলম ও সাবেক অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস) মো. আনোয়ার লতিফ খানের ওপরও নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ট্রেজারি ডিপার্টমেন্ট।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

All Rights Reserved ©2024