সোমবার, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সাহিত্য চর্চার জন্য সুন্দর একটা মনের প্রয়োজন

লেখকঃ রাসেল আহমেদ সাগর

সাহিত্য জগতটাই সম্পূর্ণ ভিন্ন, যে জগতে সবার জায়গা হয়না। জায়গা হয় তাদের যাদের সুন্দর একটা মন আছে। হয়তো টাকার জোরে বা রূপের গুনে যে কেউ চাইলে সেখানে পদার্পণ করতে পারেন, তবে সেটার স্থায়িত্ব বেশি দিন থাকে না। যেমন বাঁশ আর বটগাছ, বাঁশ খুব দ্রুত লম্বা হতে শুরু করে আর বটগাছ ধীরে ধীরে বড় হয়। বাশ আকাশ চুয়ার স্বপ্ন দেখে এবং সে আকাশের দিকে উঠতে থাকে আর বটগাছ ধীরে ধীরে পনের বিশ বছরে মাএ সর্বোচ্চ ২০ ফুট লম্বা হয়, আর বাশ ৬ মাসে ২০ ফুট অতিক্রম করে। এবং বটগাছ কে বলে দেখ আমি আর কিছু দিন পর আকাশ চুয়ে ফেলবো আর তুই শুধু তাকিয়ে দেখবি, বট গাছ তখন মুচকি হাসে আর বলে আরে বোকা সামনের ঝড় তুফানে দেখা যাবে কার দৌড় কত। ঠিক কিছু দিন পর কাকপক্ষী এসে বাঁশের মাথায় বসে মাথা টা ভেঙ্গে দেয় আকাশে ওঠার স্বপ্ন এখানেই শেষ । আর বট গাছে শুধু কাকপক্ষী নয় শত জাতের পাখি বসে আরাম করে বাসা তৈরি করে এমন কি নিচে মানব জাতি ও গরমের জন্য আশ্রয় নেয়, শেষ মেষ বাসার আসবাবপত্র তৈরি কাজে ব্যবহৃত হয় । যার স্থায়িত্ব ও দীর্ঘমেয়াদী ঠিক তেমনি সাহিত্য জগতে নানান মানুষ আসে আবার হারিয়ে যায়। কিন্তু যারা সত্যিকার অর্থে মন থেকে সাহিত্য কে ভালবাসে এবং আঁকড়ে ধরে তারা ঠিকই রয়ে যায় বইয়ের পাতায় মানুষের মনে যেখান থেকে সরানো বা সরার কোন সম্ভাবনা নাই। একজন ভালো উদার মনের লেখক চাইলেই তিনি সরে যেতে পারেন না আর কোন কারনে সরে গেলেও মানুষের মনের ভীতর থেকে যান যুগযুগ ধরে। দুঃখের বিষয় হলো আগে দেখতাম একজন লেখকের জন্য আরেক জন লেখকের কত টান কত মায়া মমতা ছিলো বর্তমানে তার অর্ধেক ও নেই। ৯৮ তে যখন একটা লেখা লিখতাম পএিকায় দেবার আগে বড় কাউকে দেখাতাম উনি ও কত সুন্দর করে লেখা ঠিক করে বুঝিয়ে দিতেন আর বলতেন এখন তোমার লেখা ঠিক আছে দিতে পারো উসাহিত করার জন্য বলতেন তোমার লেখা খুব সুন্দর হয়েছে দারুণ তো ইত্যাদি। লেখা যখন পএিকায় চাপা হতো আনন্দের সীমা ছিলো না। আর বর্তমানে উসাহিত করা দূরের কথা টেনে নিচে নামানোর লোকের সংখ্যা বেশি। কিন্তু আশার বিষয় হলো বর্তমান ভার্চুয়াল জগত আমাদের অনেকটা এগিয়ে দিয়েছে নানান সুযোগ করে দিয়েছে এখন আর পএিকায় লেখা দিয়ে অপেক্ষা করতে হয়না। সেই সাথে কিছু উদার মনের মানুষ সাহিত্য চর্চায় নিজেকে জরিত রেখেছেন আশার আলো দেখাচ্ছেন নতুনদের। চালিয়ে যাচ্ছেন এই চর্চা চালিয়ে যাবার নানান চেষ্টা,যা সত্যি প্রশংসার দাবিদার। অন্য দিকে আরেক দল তৈরি হয়েছেন শুধু আমার নাম সবাই বলতে হবে সবাই শুধু আমার নাম জানুক এটা সফলতা নয় সফলতা হচ্ছে আমার মাধ্যমে কে কার মনের কথা প্রকাশ করতে পারছে তার প্রতিভার বিকাশ ঘটাতে পারছে সে দিকে লক্ষ রাখা। টাকা রূপ দিয়ে নাম কামানো যায় ঠিক সম্মান মিলে না। সম্মান তারা পায় যারা অন্যকে এগিয়ে যেতে সাহায্য করে, দিন রাত অন্যের জন্য নিজের সময় ব্যায় করে অন্যের প্রতিভাকে বিকশিত করে তারা।

 

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

All Rights Reserved ©2024