শনিবার, ১৮ই মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

হিংসার দহনে হিংসুক জ্বলতে থাকে সারাক্ষণ

         লেখক: আফিয়া বেগম শিরি (যুক্তরাজ্য)

ভেতরে হিংসা রেখে যারা বাহিরে আন্তরিকতা দেখায়, এমন মানুষের সংখ্যা অনেক। পাশে পেলে জড়িয়ে ধরা, কুশল বিনিময় করা, আবার সামনে থেকে সরে এসে অন্যের কাছে গীবত গাওয়া, এ কেমন মন মানসিকতার মানুষ। আশ্চর্য লাগে ওদের আচরন দেখলে।

মানুষ সৃষ্টির সেরা জীব বলে জানি কিন্তু ওদের দু’মুখী আচরনটাই ধ্বংসের মুল। দেখবেন এমন নিখুঁত অভিনয় করে আপনার প্রশংসা করবে যেনো আপনিই তার প্রিয় একজন মানুষ, আবার অন্যের কাছে গিয়ে আপনার বদনাম রটাবে।

এক ধরনের মানুষের কাজই এমন ওরা সারাক্ষন নিজেকে পজিটিভ ভাববে আর পরের সব কিছুতেই খুঁত ধরবে। একটা কথা মনে রাখবেন যাদের অন্যের সমালোচনা করার অভ্যাস আছে তারা আপনার সমালোচনা অন্যের কাছে করবে নির্দ্ধিধায়। এতে সন্দেহ নেই। তাই সাবধান, সবাইকে বিশ্বাস করে মনের কথা বলবেন না। পরচর্চা করা এমন একটা বদ অভ্যাস যা মানুষের রক্তের সাথে মিশে যায়।

আমরা চারিপাশে এমন মানুষ দেখতে পাই যারা কথাবার্তায় বিনয়ী কিন্তু অন্যের ভালোটা দেখতে পারে না। কারো সাফল্য তাদের গায়ে সহে না। কিভাবে তাকে অন্যের চোখে ছোট করা যায় সেই ধান্ধায় পথ খুঁজে। অথচ নিজের যোগ্যতা কতটুকু আছে তা তলিয়ে দেখে না।

হিংসা মানুষের অন্তর্জালা বাড়িয়ে দেয়। হিংসার দহনে হিংসুক জ্বলতে থাকে সারাক্ষণ। হিংসুক ব্যক্তি অন্যের সফলতায় হিংসার বশবর্তী হয়ে ক্ষতিকর কাজে লিপ্ত হতে সামান্যতম দ্বিধাবোধ করে না।

আপনি সবার সাথে বিনয়ী হোন, বিশ্বাসের মর্যাদা দিন, দেখবেন একদিন অন্যরাও আপনাকে নিয়ে পজেটিভ ভাবা শুরু করবে। আমাদের নবী হযরত মুহাম্মদ(সাঃ) কখনো কারো সাথে হিংসা করেন নি, বরং উম্মতদেরকে হিংসা না করতে, কোন ব্যক্তি সম্পর্কে মন্দ ধারণা, দালালী, গোয়েন্দাগিরি, একে অপরের পিছনে লাগা ইত্যাদি কাজ থেকে বিরত থাকতে নির্দেশ দিয়ে গেছেন।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১

All Rights Reserved ©2024