রবিবার, ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

চিরনিদ্রায় শায়িতঃ আব্দুল হালিম

সৈয়দ শাহেদ হকঃ অবশেষে চিরবিদায় বিদায় নিলেন মিশিগানে বাংলাদেশী কমিউনিটির আরেক বর্ষীয়ান ব্যক্তিত্ব এবং দীর্ঘদিনের বাসিন্দা, প্রবীন প্রবাসী জনাব আব্দুল হালিম।

সিলেট জেলার বিয়ানীবাজার উপজেলার দেউলগ্রামের অধিবাসী জনাব আব্দুল হালিম ১৯ জানুয়ারী রাত আনুমানিক ৮ঃ৩০ মিনিটের সময় ডেট্রয়েট রিসিভিং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। মরহুমের নামাজে জানাজা ২০ জানুয়ারী বাদ জোহর আল ফালাহ মসজিদে সম্পন্ন হয়েছে।

বর্ষীয়ান ব্যক্তিত্ব আব্দুল হালিমের নামাজে জানাজায় কমিউনিটির সর্বস্তরের বিপুল সংখ্যক মানুষ অংশ গ্রহণ করেন। আজ ২১ জানুয়ারী ডিট্রয়স্থ উডমেয়ার সেমিটারীতে বিয়ানীবাজার সমিতির নির্ধারিত কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হবে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, মরহুম আব্দুল হালিম হচ্ছেন, বর্তমানে মিশিগানে বসবাসরত প্রবীন এবং পুরাতন প্রবাসী বাংলাদেশীদের একজন। তিনি ১৯৭৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রে আসেন এবং তিনি হচ্ছেন মিশিগানে বাংলাদেশী কমিউনিটি প্রতিষ্ঠিত প্রথম মসজিদ, নুর মসজিদের প্রথম জুম্মার তিনজন মুসল্লীদের একজন। অন্য দুজন মুসল্লীদের একজন হলেন উনার চাচাতো ভাই প্রবীন প্রবাসী এবং বাংলাদেশ এভিনিউস্থ ফেয়ার স্কাই ট্রাভেলস এর সত্ত্বাধীকারী হাজী নিজাম উদ্দিন আহমদ এবং তৃতীয় জন হলেন মরহুম ওয়াজি উল্লাহ। কমিউনিটিতে সৎ ও নিষ্ঠাবান এবং অত্যন্ত অমায়িক ব্যবহারের অধিকারী হিসেবে পরিচিত জনাব আব্দুল হালিম দীর্ঘদিন ধরে দুরারোগ্য ব্যাধিতে ভুগছিলেন, বছর দুই আগে স্ত্রীকে হারানোর পর তার স্বাস্থ্যের আরো অবনতি হয়। এখানে আরো উল্লেখ্য যে, মরহুম আব্দুল হালিম এক সময় ডেট্রয়েট শহরের বাসিন্দা ছিলেন তবে, বিগত কয়েক বছর যাবৎ তিনি হ্যামট্রামিক শহরে বসবাস করে আসছেন। অত্যন্ত ধর্মানুরাগী মরহুম আব্দুল হালিম আল ফালাহ মসজিদের নিয়মিত একজন মুসল্লী এবং ট্রাষ্টি বোর্ডের একজন অন্যতম সদস্য। মৃত্যুকালে তিনি পরিবারের সদস্য ছাড়াও আত্নীয় স্বজন এবং অগনিত বন্ধু বান্ধব রেখে গেছেন।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

বিজ্ঞাপন

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০  

All Rights Reserved ©2024