মিশিগানে কেমার্টের চিরতরে বিদায়

বৈশ্বিক অর্থনৈতিক মন্দার প্রভাবে ও ক্রেতাদের আশানুরূপ সাড়া না পাওয়ায় মিশিগানে খুচরা বিক্রেতা কেমার্ট স্টোর চিরতরে বন্ধ করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

জানা গেছে, ১৫৮৬১ মিশিগান এভিনিউতে অবস্তিত কেমার্ট ২১ শে নভেম্বরের মধ্যে বন্ধ করার প্রস্তুতি নিচ্ছে এবং সাময়িকভাবে বন্ধের কাজে সাহায্য করার জন্য কর্মচারী নিয়োগ করছে।

এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটির ৫৯ বছরের ইতিহাসের একটি সমাপ্তি ঘটবে। ডিসকাউন্ট ডিপার্টমেন্ট স্টোর চেইন, যা ১৯৬৯ সালে গার্ডেন সিটিতে প্রথম দোকান খুলেছিল এবং একবার ট্রয় -এ সদর দফতর ছিল।

সাম্প্রতিক দশকগুলোতে ক্রমাগত এর পতন হয়েছে। মিশিগানে এর শিকড় গড়ে ওঠে ১৮৯৯ সালে ডেট্রয়েট শহরের এস.এস. ক্রেজ-এর পাঁচ-ডাইমে। ১৯৯০ এর দশকের মাঝামাঝিতে যুক্তরাষ্ট্রে এর ২৩২৩ টি আউটলেট ছিল এবং অন্যান্য স্থানে ছিল ১৬৩টি।

কিন্তু ১৯৯০ এবং ২০০০ এর দশকের শুরুতে ব্যবস্থাপনার ব্যর্থতায় এটি ডুবতে বসে।

২০১৯ সালে খুচরা বিক্রেতা প্রতিষ্ঠানটি ঘোষণা করেছিল যে এটি ওয়াটারফোর্ড এবং ওয়ারেনের মেট্রো ডেট্রয়েটের শেষ দুটি কেমার্ট বন্ধ করছে।

বিংহাম ফার্মস এর খুচরা এবং ব্যবস্থাপনা পরামর্শক কেন ডাল্টো বলেন, কেমার্ট মূলত ১০ বছর আগে মারা গিয়েছিল। কেমার্ট এমন একটি পরিস্থিতি ছিল যেখানে তাদের নীতিগুলি প্রয়োগের ক্ষেত্রে ব্যবস্থাপনায় প্রায় সবকিছুই ভুল হয়ে গিয়েছিল।

ডাল্টো বলেন, ‘খুচরা প্রতিদ্বন্দ্বী ওয়ালমার্ট, কস্টকো এবং টার্গেট প্রাধান্য পেয়েছে বলে কেমার্ট তার পরিচয় হারিয়ে ফেলেছে।আপনি যদি একটি কেমার্ট দোকানে যান, আপনি দরিদ্র পণ্যদ্রব্য, জনসংখ্যাতাত্ত্বিক ফোকাসের অভাব দেখতে পাবেন। এটা কি ২০ বছরের তরুনের জন্য উপযুক্ত? আর শিশুদের পণ্যও নেই।’  তিনি বলেন ‘যখন দেউলিয়া হয়ে পড়েছে, তাদের বেঁচে থাকার চেয়ে মরে যাওয়াই ভালো।’