প্রবাসী মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকদের সম্মাননা প্রদান করলো বার্মিংহাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার কমিটি

রাশিয়া খাতুনঃ বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ অধ্যায় হচ্ছে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ। যে যুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত হয়েছিল স্বাধীনতা। যাঁদের আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমরা আমাদের স্বাধীনতা পেয়েছি সেই বীর মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণ করতে
সম্প্রতি বার্মিংহাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার কমিটির উদ্যোগ অনুষ্ঠিত হলো বিজয় মেলা।

সেই বিজয় মেলার অন্যতম আকর্ষণ ছিল তিন জন বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং পনেরো জন প্রবাসী মুক্তিযুদ্ধের সংগঠকদের সম্মাননা স্মারক প্রদানের মাধ্যমে তাঁদের মূল্যায়ন করা। এ উপলক্ষে একটি ম্যাগাজিন প্রকাশিত হয়। যেখানে রয়েছে প্রবাসী মুক্তিযুদ্ধা সংগঠকদের তালিকা।

উল্লেখ্যে যে একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের সময় বার্মিংহামবাসীর অবদান ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লিখা রয়েছে। বার্মিংহামের ঐতিহাসিক স্মলহীথ পার্কে উত্তোলিত হয়েছিল বহিঃবিশ্বে প্রথম বাংলাদেশের পতাকা। এ সব কিছুর মূলে ছিল তৎকালীন সময়ের কয়েকটি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ তন্মধ্যে উলেলখযোগ্য ছিল ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন, ইস্ট পাকিস্তান লিবারেশন ফ্রন্ট, ওয়ার্কার এসোসিয়েশন, আজিজ মোমেরিয়েল ট্রাস্ট, সহ অন্যান্য সংগঠন সমূহ।

অনুষ্ঠানে যে তিনজন মুক্তিযোদ্ধাদের উষ্ণ অভ্যর্থনা সহ সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয় তন্মধ্যে, বীর মুক্তিযোদ্ধা আকিল আহমদ চৌধূরী(সেক্টর নম্বর ৫), বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হামিদ (সেক্টর নম্বর ৪), বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিয়াউর ইসলাম মাহতাব (সেক্টর নম্বর ৮)।

প্রবাসী মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক তথা বিশেষ করে বেশ কয়েক জনকে মরণোত্তর সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয় তন্মধ্যে ড.তজাম্মেল টনি হক এমবিই, আলহাজ্ব নাসির আহমেদ, মোতাছিম আলী সিতু মিয়া, আহমেদুল হক এমবিই, মরহুম আব্দুল হাকিম, আব্দুর রশিদ ভূইয়া, নাজিয়া বেগম রশিদ, মিশির আলী,মরহুম আফরোজ মিয়া, মরহুম আব্রুছ মিয়া, মরহুম আব্দুস সবুর চৌধূরী, মরহুম আব্দুল খালিক, দবির আহমদ, মরহুম খলিলুর রহমান প্রমুখ ।