ভাবনা

কবিঃ বিরহী নীহার রঞ্জন দেবনাথ

জগৎ জুড়ে চলছে কেবল
দুর্নীতি অপকর্ম
অসৎ লোকে রেহাই পাচ্ছে
ব্যবহার করে ধর্ম ।।

বস্ত্রহীনা ক্ষুধার্ত লোকের
করুণ কান্নার ধ্বনি,
উৎপীড়নের ক্রন্দন রোল
বাতাসে উঠছে রনী।

কল কারখানা বন্ধ আজ
কাজ নেই কারো হাতে,
হিন্দু মুসলিম বৌদ্ধ খ্রিষ্টান
কষ্ট পায় আজ ভাতে।

ক্ষেতের ফসল বিক্রি করতে
উচিৎ মূল্য নাই,
কেমন করে বাঁচবে কৃষক
ভাবছি বসে তাই?

ভাতের হাড়ি চুলায় বসায়
ফুটায় তাতে জল,
ক্ষুধায় কাতর বাচ্চার সঙ্গে
করছে মায়ে ছল।

হিংস্রতায় মানুষ এখন
অধম পশুর থেকে,
মানুষ আমি কেমন করে
লজ্জা রাখি ঢেকে?

নিভৃতে নীরবে মন
কাঁদে বসে ঘরে,
ভাবছি আমি এই সমাজে
বাঁচবো কেমন করে?

সন্ধ্যা তারা চাঁদের মত
হাসিতে চায় এ মন,
নিদারুণ ওই অভাব আমায়
তাড়ায় সারাক্ষণ।

সুকৌশলে সমাজপতি
হয়েছে আজ ধনি,
আমরা গরিব সারাজীবন
হয়ে থাকি ঋণী।

জেগে উঠ সর্বহারা
এবার লড়াই হবে,
নেজ্য পাওনা এবার আমরা
ছিনায় আনবো সবো।

বৈষম্যতা সমাজ থেকে
করো পরিহার,
আমরা মানুষ সবার জন্য
সমান অধিকার।।