জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধন সনদের দায়িত্বে থাকবেন কাউন্সিলর

মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, ‘দ্রুততম সময়ের মধ্যেই স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন সনদ প্রদানের দায়িত্ব দেওয়া হবে।’
তিনি বলেছেন, ‘এসডিজির টার্গেট অনুযায়ী নগরবাসীকে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধনের আওতায় আনার লক্ষ্যে সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলরদের জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন সনদ প্রদানের দায়িত্ব অর্পণ করা প্রয়োজন। এখন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে শূন্য থেকে দুই বছর বয়সী সব শিশুকে জন্মসনদের সঙ্গে একটি করে গাছের চারা উপহার দেওয়া হয়।’তিনি আরও বলেন, এবার দিবসটির প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ‘সবার জন্য প্রয়োজন, জন্ম ও মৃত্যুর পরপরই নিবন্ধন’, যা সময়োপযোগী ও অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। জন্ম বা মৃত্যুর ৪৫ দিন পর্যন্ত বিনামূল্যে, ৪৫ দিনের পর থেকে ৫ বছর পর্যন্ত ২৫ টাকা, ৫ বছরের পর থেকে ১০ বছর পর্যন্ত ৫০ টাকা এবং ১০ বছরের পর থেকে ১০০ টাকায় নিবন্ধন সনদ প্রদান করা হয়।
ডিএনসিসি মেয়র বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে চালু করা ‘সবার ঢাকা’ মোবাইল অ্যাপস ব্যবহার করে নগরবাসী যাতে সহজেই জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন সনদ সম্পর্কে জানতে পারে, সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্ৰহণ করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।