ভাতের বিনিময়ে পড়াতে চাওয়া সেই আলমগীর চাকরি পেলেন

মিশিগান প্রতিদিন ডেস্কঃ দুবেলা ভাতের বিনিময়ে পড়াতে চাওয়ার বিজ্ঞাপন দিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া আলমগীর কবিরকে চাকরি দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশর অন্যতম রিটেইল চেইন শপ ‘স্বপ্ন’তে চাকরি পেয়েছেন আলমগীর।

বগুড়া জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে বুধবার (২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে পুলিশ সুপার সুদীপ কুমার চক্রবর্তীর প্রচেষ্টায় শপিংমল পুলিশ প্লাজা বগুড়া ব্রাঞ্চে ‘রিসার্চ অ্যাসোসিয়েট’ পদে তাকে চাকরি দেওয়া হয়েছে । বুধবার পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আলমগীরের হাতে নিয়োগপত্র তুলে দেন স্বপ্ন এর পরিচালক সামসুদ্দোহা শিমুল।

এর আগে দুপুর ১২ টার দিকে আলমগীর কবির বগুড়া জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে যান। সেখানে প্রায় ২ ঘণ্টা ধরে আলমগীরের সঙ্গে আলাপ করেন এসপি। এ সময় তার কাছে থেকে বিস্তারিত কথাবার্তা শোনেন এসপি সুদীপ কুমার চক্রবর্ত্তী। তিনি জানান, আলমগীরের ওই বিজ্ঞাপনের সত্যতা যাচাই করার জন্য তার সাক্ষাৎকার নিই। কথা বলে মনে হয়েছে তার চাকরি আসলেই প্রয়োজন আছে। আবার এটাও ঠিক ওই ধরনের বিজ্ঞাপন দেওয়া হীন মানসিকতার পরিচয়। সে কথা তাকে বলেছি।

৩২ বছর বয়সী আলমগীর কবির বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজ থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে অনার্স ও মাস্টার্স করেছেন। তিনি জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার শরাইল গ্রামের মো. কফিল উদ্দিনের ছেলে। আলমগীর বর্তমানে বগুড়া শহরের জহুরুলনগর একতলা মসজিদ এলাকার পাশের একটি বাড়িতে থাকেন। সম্প্রতি পড়াতে চেয়ে বিজ্ঞাপন দিয়ে আলমগীর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হন।