বৈদ্যুতিক সড়ক বানাচ্ছে ভারত

আর পেট্রল বা ডিজেলে নয়, দিল্লি থেকে রাজস্থানের জয়পুর যাওয়ার জন্য বৈদ্যুতিক রাস্তা বানাচ্ছে ভারত। প্রায় ২০০ কিলোমিটার এই রাস্তায় বিদ্যুতের সাহায্যেই ছুটবে গাড়ি। সম্প্রতি কেন্দ্রীয় পরিবহণ মন্ত্রী নিতিন গডকড়ী এই ধরনের জাতীয় সড়কের কথা ঘোষণা করেছেন। এর দু’টি লক্ষ্য— প্রথমত, এই পদ্ধতিতে পণ্য পরিবহণের খরচ কমবে। দ্বিতীয়ত, এর ফলে দূষণমুক্তও থাকবে পরিবেশ।

সহজ ভাষায় বলতে গেলে যে রাস্তার উপর দিয়ে বৈদ্যুতিক যানবাহন চলবে। বৈদ্যুতিন ট্রেনের প্যান্টোগ্রাফ দেখেছেন নিশ্চয়ই। সেই প্যান্টোগ্রাফের মাধ্যমে বিদ্যুৎশক্তি এবং চলার গতি পায় ট্রেন। ঠিক তেমনই বৈদ্যুতিক জাতীয় সড়কের উপরে বৈদ্যুতিক তার থাকবে। বাহনে প্যান্টোগ্রাফের মতো ব্যবস্থা থাকবে। যার সাহায্যে ওই তার থেকে চলার শক্তি সংগ্রহ করবে বাহনগুলি। এ ছাড়াও সড়কের কিছু দূর অন্তর চার্জিং স্টেশন থাকবে। সেখানেও গাড়ি চার্জ দিয়ে নিতে পারবেন চালকরা।

পণ্য পরিবহনের খরচের কথা মাথায় রেখে এ ধরনের সড়ক তৈরির সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভারতীয় পরবহনমন্ত্রী। তার দাবি, এর মাধ্যমে ৭০ শতাংশ খরচ কমে যাবে। এরই মধ্যে একটি সুইডিশ প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। জানা যায়, সুইডেনেই প্রথম বৈদ্যুতিক সড়কের ব্যবহার শুরু হয়। ইতিমধ্যেই সুইডিশ সংস্থার সঙ্গে কথা শুরু হয়েছে এ বিষয়ে। সূত্র: আনন্দবাজার।