অজয় চন্দ্রের জীবন

কবিঃ এস এম শহীদুল্লাহ

অজয় চন্দ্র গরীব মানুষ,
মুচির কাজ করে,
নারায়ণগঞ্জ ইপিজেড এ,
বসে রাস্তার ধারে।

আমায় ডেকে বললো অজয়,
এই যে শোনেন স্যার,
করবো আপনার জুতা কালি,
কিনবো পেটের ষ্যার ।

অজয় চন্দ্রের কাড়াকাড়িতে,
নিলাম জুতোয় কালি,
অজয় চন্দ্র নিশ্চয় গরিব,
নয় সে অর্থশালী।

রাস্তার পথিক দেখলে অজয়,
তাকেই বলে স্যার,
ঘরে আছে মোর বউ ছেলে,
কষ্টে জীবন ভার।

অজয় চন্দ্র রাস্তায় বসে,
করছে জূতার কালি,
জীবন তাহার অনেক কষ্টের,
ধরছে চোরাবালি।

আমার কবিতা লেখা দেখে,
বললো অজয় স্যার,
চা পান খাওয়াবো আমি,
দুঃখ নাই আর।

আমায় নিয়ে হঠাৎ যখন,
লিখছেন কবিতা,
স্মৃতি পাতায় গেঁথে রাখবো,
আপনার ছবিটা।

ছবি সহ কবিতার পাতা,
দিলাম অজয়ের হাতে,
আনন্দে অজয় উল্লাসিত।
খুশিতে গেলো মেতে।