আমার সন্তান থাকুক দুধে ভাতে

লেখক: জাহিদ হাসান আবেদ

আমার সন্তান থাকুক দুধে ভাতে।বৈষ্যমের সমাজ তথা দেশ গড়তে এই একটা বাক্যই যথেষ্ট।আধুনিক বিশ্বে আমরা যতটাই আধুনিক,তার চেয়ে বেশি হিংস্র।আমি ভালো থাকতে হবে, আমাকে ভালো রাখতে হবে।বিনিময়ে সব ধ্বংস হয়ে যাক।এই ধরনের স্বার্থন্বেষী চিন্তা গুলো , দিন দিন আমাদের ভয়ংকর এবং হিংস্র বানাচ্ছে।আমি কিংবা আমাকে ভালো রাখার।চিন্তাধারা গুলো সমাজে এক প্রকার বৈষম্যের সৃষ্টি করছে।যে বৈষম্যে দিন দিন পাহাড় সম হচ্ছে।ফলে এক শ্রেনী বিপুল পরিমান খাবার অপচয় করছে।আরেক শ্রেনী ক্ষুধার যন্ত্রনায় হাহাকার করছে।অনহারে অর্ধাহারে রোগে ভুগে মৃত্যু বরণ করছে।যেন বৈষম্য খেলায় মেতেছে পুরো বিশ্ব।যার যত আছে তার আরো বেশি চাই।ধনী আরো ধনী হচ্ছে,নিন্মবৃত্ত আরো নিন্মে চলে যাচ্ছে।বাড়ছে অনাহারী মানুষের সংখ্যা।ধনীদের আগ্রাসনে ভিটেমাটি হারাচ্ছে অনেক মানুষ।উদ্ভাস্তু হয়ে ঘুড়ছে এক শ্রেনীর মানুষ।ভিটে মাটি হারিয়ে নিঃস্ব মানুষ গুলো সন্তানদের এক বেলা দু মুঠ খাবার জোগাড় করে দিতে পারছে না।বাড়ছে অনাথ পথ শিশুর সংখ্যা।অনহারী পথে পথে ঘুড়া এ শিশু গুলোর কান্না যেন শোনার সময় নেই কারোই।অবহেলায় এ শিশু গুলো একটু বড় হতে পারলে,চুরি,ছিনতাইয়ে জড়িত হচ্ছে।ক্ষুধা নামক শব্দটা নিবারনের জন্য তারা মনে করে এ পথটাই আছে।ধীরে ধীরে তারা আরো বড় অপরাধে জড়ায়।হয়ে যায় অন্ধকার জগতের মানুষ।এ দায় কার?? সমাজপতিরা সমাজ বিনির্মানের দায়িত্ব পাওয়ার পর পরই,সমাজ বিনির্মানের পূর্বে নিজে এবং নিজের ওয়ারিশদের বিনির্মানের চিন্তায় উঠে পরে লাগে।ব্যবসায়ী ব্যবসা শুরুর পূর্বে কিভাবে লোকজন ঠকিয়ে বিত্তশালী হওয়া যায়।ডাক্তার সেবার পূর্বেই টাকার পাহাড় গড়তে চায়,শিক্ষক নৈতিকতা ভুলে অর্থশালী হতে চায়।নীতির বিসর্জন আইনজীবী অর্থের দূর্গ গড়তে চায়।সাংবাদিক নিজ কর্মের ধারার সাথে বেঈমানী করে আলোকে আঁধার,আঁধারকে আলোর গল্প সাজায়।এভাবে প্রতিটা মানুষ নীতি নৈতিকতা ভুলে,নিজের পেশার দায়িত্ব ভুলে, অর্থের পাহাড় গড়তে চায়।অন্যদিকে অনাহারী অর্ধহারী লোক না খেয়ে মরে যাক।তাতে কারো আপষোস নাই।তার মানে, আপনার সন্তান থাকুক দুধে ভাতে, বাকিদের সন্তানরা থাকুক অনাহারে খালি পেটে।মনে রাখবেন ক্ষুধার্ত এ শিশু গুলো ক্ষুধার তীব্রতায় ধীরে ধীরে কতটা ভয়ানক হতে পারে, কতটা ভয়ংকর পরিস্থতি ঘটাতে পারে চিন্তাও করতে পারবেন না।কারণ ক্ষুধার রাজ্যে পৃথিবী গদ্যময়,,,,,, এর পরের লাইনটা নিশ্চয়ই সবার জানা আছে।