রাগারাগি নয় ভাগাভাগি

কবিঃ শাহী সবুর

সংসারে আজ দারুণ অভাব
বোঝে না তা কেউ,
দিনে দিনে বাড়ছে মনে
অশান্তিরই ঢেউ।

গিন্নি বলে বাজার আন
রান্নার কিছু নাই,
আমি ভাবছি বাজার করতে
টাকা কোথায় পাই?

মানি ব্যাগ আর পকেট ঝেড়ে
একশ টাকা পেলাম,
অবশেষে সেটা নিয়ে
বাজার করতে গেলাম।

অল্প দামে হিসাব মিলায়
বাজার করে আনি,
গিন্নি আমার বাজার দেখে
ফেলে দিলেন টানি।

আমার অভাব মানতে চায় না
করে নানান দাবী,
সংসার ফেলে কোথায় যাবো
আমি এখন ভাবি?

অভাব সে তো হতেই পারে
সংসার করতে গিয়ে,
তাই বলে কি জুলুম করবে
দারিদ্রতা নিয়ে?

সুখের বেলায় যে বউ আছে
দুঃখের বেলায় নাই,
তার সঙ্গে আর থাকবো কি না
ভাবছি বসে তাই?

কথায় কথায় ঝাড়ি দেয় সে
দুর্বলতা পেলে,
সে নাকি খুব সুখী হত
অন্য ঘরে গেলে।

ইচ্ছে করে বিদায় করি
মোহরানা দিয়ে,
দেখবো কেমন সুখী হয় সে
অন্য কোথায় গিয়ে?

রাগের মাথায় তাড়ায় দিলে
সংসার ভেঙে যাবে,
অবোলা এই বউটা তখন
দারুণ কষ্ট পাবে।

বাপের বাড়ির ফুটানি তার
বন্ধ হবে জানি,
আত্মীয়রা জানলে আমার
হবে মানের হানি।

স্বামী স্ত্রী এক সংসারে
আর নয় রাগারাগি,
সুখ ও দুঃখ দুজন মিলে
করবো ভাগাভাগি।।