আবারো ডেট্রয়েটের মেয়র হলেন ডুগান

মিশিগানের সবচেয়ে জনবহুল শহর ডেট্রয়েটের মেয়র হিসেবে আবার জয়ী হয়েছেন মাইক ডুগান। মঙ্গলবারের নির্বাচনে ডুগান সহজেই অ্যাটর্নি অ্যান্থনি অ্যাডামসকে পরাজিত করে মোটর সিটির নেতৃত্ব দিয়ে তৃতীয় মেয়াদে পুনরায় নির্বাচিত হন। ডুগান ৭৫% এর বেশি ভোট পেয়েছেন যেখানে তার প্রতিদ্বন্দ্বি অ্যান্টনি অ্যাডামস পেয়েছেন ২৪%।

ডুগান শহরের ইতিহাসে দ্বিতীয় সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদের মেয়র হতে চলেছেন, যিনি ২০ বছর ধরে শহরের প্রথম আফ্রিকান আমেরিকান মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ৷ বিজয়ী হওয়ার পর ডুগান দারিদ্র্যের মধ্যে আটকে পড়াদের সাহায্য করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তিনি বলেন, “আমরা আপনাকে এবং আপনার পরিবারকে স্থিতিশীল করার জন্য সঠিক পথে যেতে সাহায্য করতে যাচ্ছি এবং তারপরে আপনাকে একটি চাকরি পাওয়ার সুযোগ দেব যাতে আপনাকে কখনই চিন্তা করতে হবে না, আর এটীই আমাদের দৃষ্টিভঙ্গি। এ বিষয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।” মেয়র শহরের প্রতিটি ক্ষতিগ্রস্থ বাড়ি অপসারণ বা পুনর্বাসন এবং আরও পার্ক আধুনিকায়ন করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। ডুগান রাত ১০ টার পরে একটি বক্তৃতায় বলেন, “আগামী দুই বছরে, আপনি রিভারসাইড পার্কে দুটি দর্শনীয় পার্ক আপগ্রেড দেখতে যাচ্ছেন যার কাজ চলছে, দক্ষিণ পশ্চিম ডেট্রয়েটে অবশেষে বাসিন্দারা পানির কাছে একটি প্রথম-শ্রেণীর পার্ক পাবেন। শহরের কেন্দ্রস্থল এবং পূর্ব দিকে কিছু সময়ের জন্য ছিল. দ্বিতীয়ত, রাল্ফ উইলসন পার্ক, যা পোস্ট অফিস দ্বারা নির্মিত হবে এবং অসাধারণ কিছু হবে। তিনি বলেন, “আমরা যে সৌন্দর্য যোগ করছি তার জন্য ডেট্রয়েট জাতীয়ভাবে পরিচতি পেতে চলেছে৷ দীর্ঘদিনের চোখের ব্যথা অপসারণ করা অপরিহার্য৷ ১৯৮০ সাল থেকে খালি থাকা দীর্ঘ সময়ের ট্রেন স্টেশনটি ৫০০০ ফোর্ড মোটর কর্মচারীর ভিত্তিস্থল হয়ে উঠবে ৷ জেনারেল মোটরসও একটি প্ল্যান্টে ২০০০ চাকরির ব্যবস্থা করবে। যদিও তারা ১৮ মাস আগে বন্ধ করার কথা ভেবেছিল। ডুগান কনারে ক্যাডিল্যাক স্ট্যাপল প্ল্যান্টের জন্য পরিকল্পিত পুনঃউন্নয়নের কথা বলেছেন, যেখানে একটি কারখানা তৈরি করা হবে এবং ৫০০ চাকরির ব্যবস্থা করা হবে।