কারখানার ভুলে নষ্ট হলো করোনার দেড় কোটি ডোজ টিকা

চলতি বছরের মার্চ থেকে এ পর্যন্ত দেড় কোটি ডোজ করোনার টিকা নষ্ট করেছে যুক্তরাষ্ট্র।মার্কিন সংবাদমাধ্যম এনবিসি নিউজের বরাত দিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এমন তথ্য জানিয়েছে।টিকা নষ্ট হওয়ার কারণ হিসেবে বলা হয়েছে- টিকার শিশি ভেঙে যাওয়া, টিকা পাতলা করার ক্ষেত্রে ত্রুটি, হিমায়িত স্থানে টিকা সংরক্ষণের ক্ষেত্রে ত্রুটি এবং শিশি ব্যবহার শুরুর পর নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে শেষ করতে না পারা।এনবিসি জানিয়েছে, নষ্ট হওয়া বা ফেলে দেওয়া টিকার পরিমাণ আরও বেশি হতে পারে।জনসন এন্ড জনসন ফরাসি বার্তাসংস্থা এএফপিকে জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের বাল্টিমোরে ইমার্জেন্ট বায়োসলিউশন পরিচালিত একটি কারখানায় উৎপাদিত করোনা টিকাগুলো রাখা ছিল।পরে তারা বুঝতে পারে যথাযথ মান নিশ্চিত করে সেসব টিকা সংরক্ষণ করা হয়নি। যে কারণে টিকাগুলো নষ্ট হয়ে গেছে।আওয়ার ওয়ার্ল্ড ইন ডাটা নামক একটি প্রতিষ্ঠানের বরাত দিয়ে এএফপি বলছে, যুক্তরাষ্ট্রে বিপুল সংখ্যক এই টিকা নষ্টের খবরটি এমন এক সময় সামনে এলো যখন বিশ্বের উন্নয়নশীল ও অনুন্নত দেশগুলো করোনা টিকার যোগান পেতে কার্যত হিমশিম খাচ্ছে।এছাড়া আফ্রিকা মহাদেশে এখন পর্যন্ত মাত্র ২ দশমিক ৮ শতাংশ মানুষ করোনা টিকার ডোজ সম্পূর্ণ করতে পেরেছেন।এ বিষয়ে নিউইয়র্ক টাইমসের প্রতিবেদনে ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে, একটি কারখানার ভুলে টিকা নষ্ট হওয়ার পর এই কোম্পানির তৈরি অন্য টিকার মানেও ভবিষ্যতে প্রভাব পড়তে পারে।যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনও (এফডিএ) এ বিষয়ে তদন্ত করবে বলে আশা করা হচ্ছে।